স্বপ্নদোষ আসলে কোন দোষ নয়
যৌন স্বাস্থ্য, স্বাস্থ্য সমস্যা

স্বপ্নদোষ আসলে কোন দোষ নয়

বয়ঃসন্ধিকালে বা বয়ঃসন্ধিকাল পার হয়ে যাওয়ার পর স্বপ্নদোষ হওয়া খুবই স্বাভাবিক। এতে লজ্জা পাওয়ার কিছু নেই। ছেলে এবং মেয়ে উভয়েরই এটি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

প্রথম বার এরকম হলে অনেকেই ঘাবড়ে যেতে পারেন। কিন্তু এটি একটি প্রাকৃতিক বিষয়। বেশিরভাগ মানুষেরই এটি হয়ে থাকে। নিচে এর সম্বন্ধে বিস্তারিত দেওয়া হলো-

স্বপ্নদোষ কী?

ঘুমের মধ্যে যৌন উত্তেজনা বোধ করা বা যৌনাঙ্গ থেকে বীর্য বের হওয়াকে স্বপ্নদোষ বলে। সাধারণত ঘুমের মধ্যে যৌন উদ্দীপক কোন স্বপ্ন দেখলে এ সমস্যা হয়ে থাকে। সকালে উঠে এই স্বপ্ন আপনার স্মৃতিতি নাও থাকতে পারে।

হস্তমৈথুন করার সাথে স্বপ্নদোষের সম্পর্ক নেই। লিঙ্গে স্পর্শ না করলেও এটি হতে পারে।

কারণ

বয়ঃসন্ধিকাল শুরু হলে শরীরে হরমোন নিঃসরণের পরিমাণ বেড়ে যায়। এসময় পুরুষদের শরীরে টেস্টোস্টেরন হরমোন নিঃসৃত হওয়া শুরু করে, যা পুরুষের শরীরে বীর্য সৃষ্টিতে সাহায্য করে। এই বীর্য শরীরে জমা হতে থাকে। এটি মাঝে মাঝে স্বপ্নদোষের মাধ্যমে বের হয়ে যায়।

মাঝে মাঝেই স্বপ্নদোষ হওয়া কি কোন সমস্যা?

বেড়ে ওঠার সময় এরকম হতেই পারে। এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই এবং এটি নিয়ন্ত্রণ করারও কোন উপায় নেই।

অনেক বেশি স্বপ্নদোষ হলেও চিন্তার কোন কারণ নেই। কারো কারো সপ্তাহে কয়েকবার, আবার কারো কারো সারা জীবনে মাত্র ২-৩ বার এরকম হয়। বৈবাহিক জীবনযাপন শুরু করলে এ সমস্যা কমে আসে।

সবার হয় কি?

বয়ঃসন্ধিকাল থেকে শরীরে বির্য সৃষ্টি হওয়ার পর এরকম হয়। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম দেখা যেতে পারে। পুরুষ ও মহিলা উভয়েরই এসমস্যা হতে পারে।

স্বপ্নদোষ হলে কী করবেন?

ঘুম থেকে উঠে প্রথমে ভাল করে নিজেকে পরিষ্কার করবেন। স্বপ্নদোষের ব্যাপারে অস্বস্তিবোধ করলে চিকিৎসকের সাথে কথা বলুন।

Comments

comments

পূর্ববর্তী পোস্ট পরবর্তী পোস্ট

আপনি হয়ত এগুলো পছন্দ করতে পারেন