শীতের প্রকোপ থেকে রক্ষা করবে যে ৭টি খাবার
খাদ্য ও পুষ্টি, সাম্প্রতিক

শীতের প্রকোপ থেকে রক্ষা করবে যে ৭টি খাবার

যতসব রোগ আছে শীতকালে সব যেন একসাথে জেঁকে ধরে। ঠাণ্ডা লাগা, সর্দিজ্বর থেকে শুরু করে নিউমোনিয়া সহ আরও কত কি! এগুলো থেকে রক্ষা করার জন্য কিছু খাবার থাকে যা আমদের পাশেই পাওয়া যায়। এগুলো খেয়েও এসব রোগের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা যায়। চলুন এসব খাবার সম্বন্ধে জেনে নিই-

শীতকালের অনন্য ৭টি খাবার

সবুজ শাকসবজি

সবুজ শাকসবজি শীতকালে যেমন পাওয়া সহজ তেমনি এরা অঙ্গরক্ষকও। এগুলোতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন এ, সি এবং কে পাওয়া যায়। এছাড়া এসব খাবারে আয়রন ও ফোলেট থাকে যা গর্ভবতী মায়েদের জন্য উপকারী। পালং শাক, ব্রকলি, বাঁধাকপি ইত্যাদি শাকসবজি খেতে পারেন।

সিট্রাস ফল

সাইট্রাস থাকে এমন ফল খাওয়া শীতকালের জন্য উপকারী। এসব ফলের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ফ্ল্যাভনয়েড এবং খাদ্যআঁশ থাকে যা শরীরের জন্য অত্যন্ত উপকারী। এই উপাদানগুলি কোলেস্টেরল এবং ট্রাইগ্লিসারাইডের মাত্রা কমিয়ে দেয়। লেবু, কমলালেবু, আঙ্গুর ইত্যাদি ফলে সিট্রাস থাকে।

ডালিম

শীতকালে ডালিম হতে পারে আপনার রক্ষক। ডালিমে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পাওয়া যায়। প্রতিদিন এক কাপ ডালিমের জুস খেলে শরীরের ফ্রি-র‍্যাডিকেলগুলো নষ্ট হয়ে যায়। ফলে শরীরের কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে।

আলু

অনেকেই আলু খেতে নিষেধ করে কারণ এর মধ্যে স্টার্চ থাকে। কিন্তু এই বিষয়টি বিবেচনার পরেও শীতকালের খাদ্যাভ্যাসের জন্য আলু অত্যন্ত পুষ্টিকর খাবার। এর মধ্যে ভিটামিন সি এবং বি৬ নামক দুটি উপাদান থাকে যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।

এছাড়াও এর মধ্যে খাদ্যআঁশ থাকে। বেগুনি রঙের আলুতে অ্যান্থোসায়ানিন নামক এক ধরনের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান থাকে যা ক্যান্সার এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

চালকুমড়া

বিভিন্ন ধরনের চালকুমড়া পাওয়া যার মধ্যে যেকোনো একটি শীতকালের খাদ্যাভ্যাসে যুক্ত করতে পারেন। এর মধ্যে ক্যালরি কম থাকে কিন্তু ভিটামিন-এ থাকে অনেক বেশি। এছাড়া চালকুমড়ায় ভিটামিন বি৬, ভিটামিন কে, পটাশিয়াম এবং ফোলেট পাওয়া যায়।

গাজর

শীতপ্রধান খাবারের মধ্যে অন্যতম একটি খাবার হলো গাজর। ভিটামিন-এ তে পরিপূর্ণ এই খাবারটি যেমন আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করবে সাথে সাথে এটি আপনার দৈনন্দিন ভিটামিন ও মিনারেলের চাহিদাও পূরণ করে।

পেঁয়াজ

খাবার রান্না করার জন্য এটি একটি অপরিহার্য উপাদান। এটি শরীরের কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে। এছাড়া এর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে খাদ্যআঁশ থাকায় এটি খাবার হজমে করতেও সাহায্য করে।

 

*আমাদের সকল লেখা বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা নিরীক্ষিত*

স্বাস্থ্য সম্পর্কিত যে কোনো সমস্যা, রোগ নির্ণয় এবং ডায়েট প্লান তৈরি করতে ডাউনলোড করুন Rx71 Health App

আপনাদের সুবিধার্থে লিংক দেওয়া হলো http://bit.ly/2aStSKw

 

Comments

comments

পূর্ববর্তী পোস্ট

আপনি হয়ত এগুলো পছন্দ করতে পারেন