ঘরোয়া চিকিৎসা, জীবনযাত্রা

শরতের ৭টি শারীরিক সমস্যা ও সমাধান

বর্ষার স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ার পরেই হয় শরতের আগমন। সুন্দর মোহনীয় আবহাওয়ায় অনেকেই ভুলে যান স্বাস্থ্য সচেতনতার কথা। আর তখনি দেখা দেয় বিভিন্ন ধরনের রোগ।

আজকে আমরা জেনে নিব যে বছরের এই সময়ে যে রোগগুলির প্রাদুর্ভাব দেখা দেয় সেগুলি থেকে রক্ষা পেতে আমাদের কি কি করণীয় রয়েছে।

শরতের ৭টি শারীরিক সমস্যা

সর্দি কাশি বা জ্বর

এই সময়ের আবহাওয়া শীতকালের মতো তীব্র না হলেও সমস্যা কিন্তু পিছু ছাড়বে না। বিশেষ করে এই সময়ে সর্দিজ্বর তো লেগেই থাকে।

এই সমস্যা প্রতিরোধের জন্য পরিবেশের তাপমাত্রার সাথে মানানসই কাপড় পড়ুন। নিয়মিত ব্যায়াম করুন। সাথে সাথে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন এবং ফল খান।

ব্রঙ্কাইটিস এবং ব্রঙ্কিয়াল অ্যাজমা

শরৎকাল হচ্ছে ব্রঙ্কাইটিস এবং ব্রঙ্কিয়াল অ্যাজমার জন্য সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ সময়। এই সময় অ্যালার্জিক অ্যাজমা এবং শ্বাসকষ্টও দেখা দিতে পারে।

এই সমস্যা থেকে বাঁচতে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। নিজের ঘর-বাড়ি পরিষ্কার-পরিছন্ন রাখুন এবং মুক্ত-বিশুদ্ধ বায়ুর সংস্পর্শে থাকার চেষ্টা করুন।

হার্ট ফেইলিওর

হৃদরোগের সমস্যায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য শরৎকাল বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। পরিবর্তনশীল আবহাওয়ার সাথে শরীর খাপ খাওয়ানোর প্রচেষ্টায় অনেক ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

এই সময়ে নিয়মিত অন্তত আধা ঘন্টা হাঁটাহাঁটি করুন এবং চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী চলার চেষ্টা করবেন।

পেটের আলসার

বছরের এই সময়ে পেটের আলসারজনিত সমস্যা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। ধুমপান, মদ্যপান, মানসিক চাপ, ক্রনিক রোগ, অনিয়মিত খাবার খাওয়ায় অভ্যাস ইত্যাদির কারণে আলসার দেখা দেয়। এসময় খাওয়ার চাহিদা কমে যাওয়া, ব্যথা এবং বমির মতো লক্ষণ প্রকাশ পেতে পারে।

পেটের আলসার প্রতিরোধে সব্জির স্যুপের জুড়ি নেই। টক দই, কলা এবং আপেল গ্রহণ এই সময়ে পেটের সমস্যা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

ওজন বৃদ্ধি

শরতের পরই আসবে শীতকাল। শীতের হাত থেকে নিজেকে বাঁচানোর জন্য আমাদের শরীর নিজে নিজেই মেদ সংরক্ষণ শুরু করে। ফলে এই সময়ে স্থূল ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়।

ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য নিয়মিত প্রচুর পরিমাণে শাক-সবজি খেতে হবে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করার জন্য ভিটামিন-সি এর সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করা যেতে পারে। নিয়মিত ব্যায়াম এবং হাঁটাহাঁটি করলে স্থুলতার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।

বাত রোগ

অস্থিসন্ধিতে ব্যথা, শরীর স্পর্শকাতর হয়ে পড়া ইত্যাদি বিভিন্ন ধরনের বাতের ব্যথার লক্ষণ এই সময়ে আরও বৃদ্ধি পায়।

গরম পানিতে গোসল করে, ব্যথার ঔষধ খেয়ে এবং ঠান্ডা থেকে দূরে থেকে এই সমস্যাগুলো নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। পাশাপাশি ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স গ্রহণ করতে পারেন। এছাড়া নিয়মিত নির্দিষ্ট প্রকারের ব্যায়াম করেও এই সমস্যা থেকে সাময়িকভাবে মুক্তি পাওয়া যায়।

পুরুষদের সমস্যা

শরৎকালে সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে পুরুষদেরকে বিশেষ পদক্ষেপ নিতে হবে। এই ঋতুতে বেশ কিছু শারীরিক সমস্যার বহিঃপ্রকাশ ঘটতে পারে, যেমনঃ প্রষ্টেটে সমস্যা হওয়া, যৌন চাহিদা কমে যাওয়া, ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়া এবং স্থূলতা।

 

*আমাদের সকল লেখা বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা নিরীক্ষিত*

স্বাস্থ্য সম্পর্কিত যে কোনো সমস্যা, রোগ নির্ণয় এবং ডায়েট প্লান তৈরি করতে ডাউনলোড করুন Rx71 Health App

আপনাদের সুবিধার্থে লিংক দেওয়া হলো http://bit.ly/2aStSKw

 

Comments

comments

পূর্ববর্তী পোস্ট পরবর্তী পোস্ট

আপনি হয়ত এগুলো পছন্দ করতে পারেন