চুলকানি দূর করার ৮টি উপায়
ঘরোয়া টিপস্‌, চর্মরোগ

চুলকানি দূর করার ৮টি উপায়

বন্ধুদের সাথে বসে আছেন হঠাৎ করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে চুলকানি শুরু হলো। কেমন বিব্রতকর অবস্থা বলুন তো। বন্ধুদের সাথে বসে থাকলে তো তাও সমস্যা নেই কিন্তু অফিসের সহকর্মীদের সামনে এরকম অবস্থানে পড়লে কেমন হবে?

চুলকানি এমন একটি সমস্যা যার যন্ত্রণার সীমা নেই। কিন্তু এটি থেকে আপনি চাইলেই মুক্ত থাকতে পারেন। কীভাবে? চলুন জেনে নেই-

চুলকানি সারানোর ৮টি ঘরোয়া উপায়

১। এক বালতি পানিতে এক কাপ বেকিং সোডা মিশিয়ে গোসল করে নিন। এভাবে কয়েকদিন নিয়মিত গোসল করলে চুলকানি দূর হবে।

২। চুলকানির সাথে ঠাণ্ডা পানির দা-কুমড়া সম্পর্ক। যে স্থানে চুলকানির সমস্যা আছে সেখানে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুতে থাকবেন। দেখবেন আস্তে আস্তে চুলকানি কমে যাবে।

৩। দুইটি তাজা লেবু নিয়ে এর রস বের করে নিন। এবার একটি পরিষ্কার তুলার সাহায্যে এটি ত্বকের উপর আক্রান্ত স্থলে লাগিয়ে নিন। এভাবে দিনে দুই বার ব্যবহার করুন।

৪। এক বালতি কুসুম গরম পানিতে ২-৩ কাপ অ্যাপল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে ভালো করে নেড়ে নিন। ১৫-৩০ মিনিট এভাবে রেখে ওই পানি দিয়ে গোসল করুন। এভাবে প্রতিদিন একবার গোসল করুন।

৫। অ্যালোভেরার পাতার ভেতরের জেলির ন্যায় অংশটুকু চুলকানির স্থানে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দিনে একবার এভাবে ব্যবহার করলে চুলকানি দূর হয়ে যাবে।

৬। গোসল করার পানি হালকা গরম করে তার মধ্যে কয়েক ফোঁটা পেপারমিন্ট অয়েল মিশিয়ে নিন। এরপর এই পানিতে ৩০ মিনিট নিজেকে ভিজিয়ে রাখুন। গোসল শেষে শরীর ভালো করে মুছে লোশন লাগিয়ে নিন।

৭। এক বালতি পানিতে কয়েকটি নিমের পাতা নিয়ে গরম পানিতে ৫-১০ মিনিট ফুটান। পানি ঠাণ্ডা হলে ওই পানি দিয়ে গোসল করে নিন।

৮। শরীরের যেসব স্থানে চুলকানি হয় সেসব স্থানে হলুদ বাটা লাগিয়ে ১৫-৩০ মিনিট রেখে দিন। হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এভাবে দিনে একবার ব্যবহার করলেই চুলকানির সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

 

*আমাদের সকল লেখা বিশেষজ্ঞ ডাক্তার দ্বারা নিরীক্ষিত*

স্বাস্থ্য সম্পর্কিত যে কোনো সমস্যা, রোগ নির্ণয় এবং ডায়েট প্লান তৈরি করতে ডাউনলোড করুন Rx71 Health App

আপনাদের সুবিধার্থে লিংক দেওয়া হলো http://bit.ly/2aStSKw

Comments

comments

পূর্ববর্তী পোস্ট পরবর্তী পোস্ট

আপনি হয়ত এগুলো পছন্দ করতে পারেন