আচরণগত সমস্যা, ঘরোয়া চিকিৎসা, ঘরোয়া টিপস্‌, জীবনযাত্রা, ফিটনেস, স্বাস্থ্য সমস্যা

কেন ঘন ঘন ঘুম ভেঙ্গে যায় ?

সারাদিনের ক্লান্তি ও দুশ্চিন্তার নিশ্চুপ পাহারাদার আপনার দুটি চোখ। তাই দিন শেষে এই চোখ দুটি বিশ্রাম চাইবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু সেই বিশ্রামেও মাঝে মাঝে ঘটে চরম ব্যাঘাত। অনেকেরই রাতে ঘন ঘন ঘুম ভেঙ্গে যায় যার প্রভাব শুধু চোখের উপরই নয়, শরীর ও মন উভয়ের উপর পড়ে। রাতে একটু পর পর ঘুম ভেঙ্গে গেলে সারা রাত যেমন অস্থিরতায় কাটে; দিনও ভাল যায় না।

ঘন ঘন ঘুম ভেঙ্গে যায় কেন?

সবার ঘুমের প্রকৃতি এক রকম নয়। কারো ঘুম খুব গাঢ় হয়; কোন ভাবেই তা ভাংতে চায় না। কারো ঘুম আবার খুব পাতলা হয়; একটু খুট করে আওয়াজ হলেই ঘুম ভেঙ্গে যায় । ঘুম যেমনই হোক, কোন কারণ ছাড়া ঘন ঘন ঘুম ভেঙ্গে গেলে সেটা যে একটি গুরুতর শারীরিক বা মানসিক সমস্যা, সে বিষয়ে সন্দেহ নেই।

ঘন ঘন ঘুম ভাঙ্গার কোনো নির্দিষ্ট কারণ নেই। তবে শারীরিক এবং মানসিক দিক দিয়ে কোনরূপ অস্বস্তি থাকলে ঘন ঘন ঘুম ভাঙ্গতে পারে।

কখনও কখনও মানসিক কারণে আপনার ঘন ঘন ঘুম ভেঙ্গে যায় । বিছানায় শুয়েও আপনি সারাদিনের চাপ ভুলতে পারেন না; আপনার মাথায় সেই সকল দুশ্চিন্তা ঘুড়পাক খেতে থাকে। ফলে, বারবার আপনার ঘুম ভেঙ্গে যায়। এক্ষেত্রে কিছু রিল্যাক্সেসন টেকনিক (Relaxation Technique) ব্যবহার করতে পারেন। যেমনঃ

১। লম্বা শ্বাস নেয়া।

২। মাসাজ।

৩। মেডিটেশন বা ধ্যান।

৪। যোগ ব্যায়াম।

৫। Music and art therapy

বিভিন্ন উত্তেজকের কারণে বারবার ঘুম ভেঙ্গে যায় । অনেকে ভাল ঘুম হওয়ার জন্য ঔষধ বা মদ্যপান করে। এতে প্রাথমিক ভাবে ভাল ঘুম হলেও কিছুক্ষণ পর এগুলোর শক্তিশালী প্রভাব মস্তিস্ককে আবার সক্রিয় করে তোলে। ফলে আপনার ঘুম ভেঙ্গে যায় ।

শরীরে ব্যথা থাকলে ঘুম ভেঙ্গে যেতে পারে।

কাজে বা আপনার দৈনন্দিন জীবনে অনেক মানসিক চাপ, হতাশা বা চিন্তা থাকলে ঘুম ভাঙ্গতে পারে।

ব্যাঘাতমুক্ত ঘুমের জন্য কী করা উচিৎ ?

  • দিনের বেলা যদি না ঘুমিয়ে থাকা যায় তাহলে না ঘুমানোর চেষ্টা করুন।
  • নিয়মিত ব্যায়াম করুন। ব্যায়াম আমাদের শারীরিক ও মানসিক উভয় দিক থেকে উপকার করে। তবে ঘুমানোর কয়েক ঘণ্টা আগে ব্যায়াম না করাই ভাল।
  • রুটিন করে ঘুমান।
  • বেড রুম শুধুমাত্র ঘুমানোর জন্য ব্যবহার করুন। শোবার ঘরে শব্দ যত কম থাকবে তত ভাল।
  • ভাল খাদ্যাভাস গড়ে তুলুন।
  • ঘুম না আসলে ঘড়ির দিকে তাকিয়ে চিন্তা বাড়াবেন না। ঘুমানোর চেষ্টা করতে থাকুন।
  • রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে যতটা পারেন দুশ্চিন্তামুক্ত থাকার চেষ্টা করুন।

Comments

comments

Previous Post Next Post

You Might Also Like

Leave a Reply