অন্যান্য

কোরবানি দেওয়ার জন্য যে গরুটি কিনবেন সেটা সুস্থ তো!

ত্যাগের মহিমায় মহিমান্বিত ঈদ-উল-আযহা ইসলাম ধর্মালম্বিদের সবচেয়ে বড় উৎসব। এই ঈদে গরু, ছাগল, উট ইত্যাদি হালাল পশু কোরবানি দিয়ে গরীব দুঃখী ও আত্মীয় স্বজনদের মাঝে বিলিয়ে দেয়া হয়।

কোরবানির পশু হিসেবে অধিকাংশ মানুষেরই প্রথম পছন্দ গরু। কিন্তু গরু কেনার পর অনেকেই অভিযোগ করেন গরুটি অসুস্থ অথবা কিনে আনার দুই দিন পরই গরুটি মারা গেছে। এসব অঘটন এড়িয়ে চলতে কেনার সময় আমাদের বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা উচিৎ।

গরু কেনার সময় যেভাবে বুঝবেন গরুটি সুস্থ

১। প্রথমেই দেখতে হবে গরুটি দেখতে তরতাজা লাগছে কিনা।  সতেজ গরুর ত্বক উজ্জ্বল থাকবে এবং দেখতে ফ্যাকাসে লাগবে না।

২। গরুটি অসুস্থ থাকলে অস্বাভাবিক ভাবে মাথা নিচু করে রাখবে। সাধারণত গুরুর মাথা এতো নিচু থাকে না।

৩। অসুস্থ গরু প্রকৃতি এবং আশেপাশের পরিবেশ সম্বন্ধে উদাসীন থাকবে। নড়াচড়া কম করবে বা করবেই না।

৪। গরুটি সুস্থ না হলে বেশি ভয় পাবে এবং অন্য পশুর পেছনে লুকানোর চেষ্টা করবে।

৫। হালকা এবং ঘন ঘন কাশি দিচ্ছে এমন গরু না কেনাই ভাল।

৬। গরুর দুই কান সোজা এবং সমান্তরালে আছে কিনা লক্ষ্য করুন। কান নিচের দিকে ঝুলে থাকলে বুঝবেন গরুটি অসুস্থ বা কোন সমস্যা আছে।

৭। চোখ দুটি বিমর্ষ দেখালে এবং চোখের কোণে ড্রেইনের মত দাগটি বেশি বড় থাকলে বুঝবেন গরুটি অসুস্থ।

৮। শ্বাস-প্রশ্বাস বেড়ে যাওয়াও গরুর অসুস্থতার লক্ষণ।

৯। গরুর মুখ এবং নাকে লালা লেগে থাকা ভালো লক্ষণ। শুকনা ও খসখসে মুখ গরুর অসুস্থতার লক্ষণ বহন করে।

১০। গরুর পেটের বাম দিকে ঠিক পেছনের অংশটুকু ফুলে থাকলে বুঝবেন গরুর পেটের সমস্যা হয়েছে। এ ধরনের গরু কেনা থেকে বিরত থাকুন। সাধারণত পেটের এই অংশটুকু নরম থাকে।

তারপরও, কোরবানির গরু কিনে এনে একজন অভিজ্ঞ পশু চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করে নিলে ভালো হয়। সঠিক নিয়মে কোরবানি দিলে মহান আল্লাহ তালা অত্যন্ত খুশি হন।

 

 

স্বাস্থ্য সম্পর্কিত যে কোনো সমস্যা, রোগ নির্ণয় এবং ডায়েট প্লান তৈরি করতে ডাউনলোড করুন Rx71 Health App

আপনাদের সুবিধার্থে লিংক দেওয়া হলো http://bit.ly/2aStSKw

Comments

comments

পূর্ববর্তী পোস্ট পরবর্তী পোস্ট

আপনি হয়ত এগুলো পছন্দ করতে পারেন